গ্রামের বার্তা

মোল্লাহাটে শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি’র জনসভায় বোমা বিষ্ফোরণে নিহত ও আহতদের স্মরণে দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠিত

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : মোল্লাহাটে জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি’র নির্বাচনী জনসভায় স্বাধীনতা বিরোধী/আততায়িদের পুতেরাখা শক্তিশালী বোমা বিষ্ফোরণ ও বিভিষীকাময় হত্যাকান্ডের ১৯তম বর্ষ পালনে কালো ব্যাচ ধারন, দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে মোল্লাহাট উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে এ দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি কালিপদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক শাহিনুল আলম ছানা।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন-উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও যুবলীগ সভাপতি মোঃ সেলিম রেজা, ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা শেখ রেজাউল কবীর, আওয়ামীলীগ নেতা অধ্যক্ষ এল জাকির হোসেন, আবুল বাশার মোল্লা, এস,এম, সাইকুল আলম, মোঃ ইউসুফ আলী খান, মোঃ জিকরুল আলম মিয়া, এস,এম, নাসির উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান এস,কে হায়দার মামুন, ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মুন্সি তানজিল হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ রেজওয়ান চৌধূরী, আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ ফারুক হোসেন মোল্লা, মোঃ মফিজুল ইসলাম, সুখ মিয়া ফকির, মনোরঞ্জন, সুখ মিয়া ফকির, মনোজ কুমার পাল, আব্দুস সবুর মোল্লা, প্রেসক্লাব মোল্লাহাটের সাধারণ সম্পাদক এম এম মফিজুর রহমান, সহ-সভাপতি শরীফ মাসুদুল করিম ও প্রচার সম্পাদক শেখ শাহিনুর ইসলাম শাহিন প্রমূখ। বর্বরোচিত এ হত্যাকান্ডের দ্রুত ও দৃষ্টান্ত মূলক বিচার দাবী করেন আলোচক বৃন্দ।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর সাধারণ মানুষের প্রিয়নেতা শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি’কে হত্যাচেস্টায় স্বাধীনতা বিরোধী/আততায়িদের পুতেরাখা শক্তিশালী বোমা বিষ্ফোরণ ও বিভিষীকাময় হত্যাকান্ড ঘটে। মোল্লাহাট খলিলুর রহমান ডিগ্রী কলেজ মাঠে জননেতা শেখ হেলালের নির্বাচনী জনসভায় প্রায় লাখো মানুষের উৎসবমূখর সমাবেশে ওই দিন বিকাল ৫টায় বিকট শব্দে বিষ্ফোরিত বোমার আঘাতে প্রিয়নেতার গাঁ-ঘেষে থাকা কয়েক নেতা-কর্মী মিলে ৯জনের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে মৃত্যু হয়। আহত হয় শতাধিক লোক। সকলের প্রানের নেতা শেখ হেলাল উদ্দীন মহান ¯্রােস্টার অসীম কৃপায় অল্পের জন্য প্রাণে বেচে গেলেও তিনি আহত হণ। বর্বরোচিত ওই ঘটনায় কয়েক ব্যক্তি পঙ্গুত্ব বরণ করেন। ওই ঘটনায় ততকালীন আ’লীগ নেতা চৌধূরী জিয়াউল ইসলাম পান্নার বাদীত্বে থানায় মামলা হয়। এরপর বিএনপি-জামাত জোট সরকার গঠন হয়। ওই সরকার মামলাটিকে বিচারহীনতার অতলগহবরে চাপা দেয়। পরবর্তীতে স্বাধীনতার চেতনার (আ’লীগ) সরকার গঠন হওয়ার পর আবার ওই মামলার কার্যক্রম শুরু হয়। এভাবেই কেটেছে গত উনিশ বছর।

এছাড়া মোল্লাহাট উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে দিবসটি পালনে উপজেলা ছাত্রলীগ কার্যালয়ে বুধবার বিকাল ৫টায় আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় নিহতদের আত্তার শান্তি ও আহতদের সুস্থ্যতা কামনাসহ জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি’র মা’এর সুস্থ্যতা কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়।
উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ান চৌধূরীর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্যদেন-উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও যুবলীগ সভাপতি মোঃ সেলিম রেজা, আ’লীগ নেতা ও কে,আর, কলেজ এর অধ্যক্ষ এল জাকির হোসেন, মোঃ ইউসুফ আলী খান, মোল্লা হাসান আলী হায়দার, ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মুন্সি তানজিল হোসেন, আ’লীগ নেতা এস,এম, নাসির উদ্দিন, চৌধূরী আহসান হাবিব শামীম, প্রেসক্লাব মোল্লাহাটের সাধারণ সম্পাদক এম এম মফিজুর রহমান, যুবলীগ নেতা কল্লোল বিশ্বাস পলু, কে,আর, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি শেখ সাজ্জাদ ও ছাত্রলীগ নেতা টিকলু মোল্লা প্রমূখ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button