গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্ত ৫৭ হাজারের বেশি

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। আজ থেকে শুরু হচ্ছে আনলক ৩, একটু একটু করে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরা শুরু করেছে ভারত। কিন্তু তার মধ্যেই প্রতি দিন আক্রান্তের নিরিখে রেকর্ড গড়ছে ভারত। পাশাপাশি বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ লাখ ছুঁই ছুঁই।

ভারতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনার আক্রান্ত হয়েছে ৫৭,১১৮ জন। এটি এখনও পর্যন্ত একদিনে রেকর্ড বৃদ্ধি। রোজই এই ভাইরাস নিজের রেকর্ড নিজে ভাঙছে। এই বৃদ্ধির জেরে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ৯৫ হাজার ৯৮৮ জন। অর্থাৎ গত ৩’দিনে দেড় লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন দেশে। বিশ্ব সংক্রমণের নিরিখে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। আপাতত দেশে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৬৫ হাজার ১০৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৭৬৪ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৬,৫১১। ইতিমধ্যেই করোনায় মৃতের সংখ্যার নিরিখে ইতালিকে টপকে বিশ্বে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে ভারত। এখনও পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৯৪ হাজার ৩৭৪ জন।

এশিয়ার মধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যার বিচারে শীর্ষ স্থানে রয়েছে ভারত। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫ লাখ ২৫ হাজারের বেশি। ফলে দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১ কোটি ৯৩ লাখ ৫৮ হাজার ৬৫৯।

দেশের মধ্যে সবচেয়ে উদ্বেগজনক অবস্থা মহারাষ্ট্র, গুজরাট, তামিলনাডু ও দিল্লি। সরকারি হিসেবে, মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ২২ হাজার ১১৮ আর মৃত্যু হয়েছে ১৪,৯৯৪ জনের৷ গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১০,৩২০ জন। আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে তামিলনাড়ু। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৪৫ হাজার ৮৫৯ আর মৃত্যু হয়েছে ৩,৯৩৫ জনের। এর পরেই রয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ, এ রাজ্যে আক্রান্ত ১ লাখ ৪০ হাজার ৯৩৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ১,৩৪৯ জনের। দিল্লিতে সংক্রমিত হয়েছেন ১ লাখ ৩৫ হাজার ৫৯৮ জন। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ৩,৯৬৩ জনের।

কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ২৪ হাজার ১১৫ আর মৃত্যু হয়েছে ২,৩১৪ জনের। উত্তর প্রদেশে করোনায় আক্রান্ত ৮৫,৪৬১৯ জন । মৃত্যু হয়েছে ১,৬৩০ জনের।

পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ হাজার ১৮৮, আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৫৮১। গুজরাটে আক্রান্তের সংখ্যা ৬১,৪৩৮ আর মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪৪১ জনের। তেলেঙ্গানায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬২,৭০৩ জন আর মৃত্যু হয়েছে ৫১৯ জনের।