ঘূর্ণিঝড় 'আম্ফান': ইতোমধ্যেই পাথরঘাটা উপজেলায় মৃদু বাতাস বইছে

‘আম্ফান’ নামের ঝড়টি প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে বর্তমানে ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অভিমুখে এগোচ্ছে। ইতোমধ্যেই উপকূলীয় পাথরঘাটা উপজেলায় মৃদু বাতাস বইছে। ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রে সাগর প্রবল উত্তাল থাকায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৪নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেয়া তথ্য মতে, ঘূণিঝড় আম্ফান মঙ্গলবার অথবা বুধবারে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। এ কারণে উপকূলীয় উপজেলায় কর্তন উপযোগী সকল ফসল অতি দ্রুত সংগ্রহ করার জন্য পাথরঘাটা কৃষি বিভাগ কৃষকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

পাথরঘাটা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, পাথরঘাটায় এ বছর মুগডাল চাষ করা হয়েছে ১০হাজার ৯২০, সূর্যমুখি ৩৪০, ভুট্টা ১৫০, চিনা বাদাম ১০৫, মরিচ ২৪০ ও শাক সবজি ৪৮০ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ করা হয়েছে। যা ইতোমধ্যেই তিন এর দুই অংশ কর্তন করা হয়েছে। বাকি কর্তন উপযোগী ফসল সংগ্রহ করার জন্য আজ থেকে গ্রামে গ্রামে কৃষিকদের উদ্ভুদ্ধ করার জন্য মাইকিং শুরু করা হয়েছে।
পাথরঘাটা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা শিশির কুমার বড়াল বলেন, আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য মতে ২০ মে ভোরে ঘূর্ণিঝড় আঘাত করতে পারে। এ কারণে কর্তন উপযোগী সকল ফসল অতি দ্রুত সংগ্রহ করার জন্য কৃষক/কৃষাণী অনুরোধ করেছি এবং মাইকিংও শুরু করে দিয়েছি। তবে এ মুহূর্তে যদি বাকি ফসল সংগ্রহ করা না হয় তাহলে ক্ষতি আশঙ্কা করেছেন তিনি।