রাজধানী

ফকিরাপুলে পথশিশুর গায়ে আগুন

রাজধানীর ফকিরাপুল এলাকায় ১০ বছর বয়সী এক পথশিশুর গায়ে আগুন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার বিকালে শিশুটির গায়ে আগুন দেওয়া হয়। মাথা বাদে শিশুটির শরীরের নিচের অংশ আগুনে পুড়ে গেছে। শিশুটি শুধু নিজের নাম পুলিশকে বলতে পেরেছে। বাবা-মা কিংবা বাড়ির কোনো ঠিকানা, কিছুই জানাতে পারেনি।

ভুক্তভোগী শিশুটি বলছে, তার নাম সেলিম। তবে যারা তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নিয়ে আসে, তারা শিশুটির নাম নিবন্ধন করিয়েছেন শাহীন নামে। বার্ন ইউনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক তরিকুল ইসলাম বলেন, আগুনে পোড়া শিশুটির দেহের শতকরা ২৭ ভাগ পুড়ে গেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, আগুনে পোড়া শিশুটিকে বিকালে একজন লোক ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। ঠিক কোথায়, কী কারণে, কে শিশুটির গায়ে আগুন ধরায়, সে ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য এখনো জানতে পারেনি পুলিশ। তবে মতিঝিল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জালাল উদ্দিন জানান, সেলিমের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। শিশুটি বলছে, অজ্ঞাত এক রিকশাওয়ালা তার গায়ে আগুন দিয়েছে। এর সত্যতা যাচাই করার জন্য কমলাপুর ও ফকিরাপুল এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন। প্রত্যক্ষদর্শীর খোঁজ পেলে আসল ঘটনা জানা সম্ভব হবে। শিশুটি কমলাপুর রেল স্টেশন এলাকায় থাকত।

তবে যে লোক শিশু সেলিমকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে তার খোঁজ মেলেনি। বার্ন ইউনিটের চিকিৎসক তরিকুল জানিয়েছেন, শিশুটির কাছে তার কোনো পরিচিত লোকজন কেউ নেই। শিশুটির রক্তের প্রয়োজন হতে পারে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button